সুধীরের দিনের ভিডিও: অ্যামনেস্টির টুলে যাচাই করলেন রিফাত

ইন্ডিয়ান ক্রিকেট দর্শক সুধীর গৌতমের ওপর কয়েকজন বাংলাদেশি হামলে পড়েছিল। ইন্ডিয়ান মিডিয়ার এই খবর সত্যি নয়- বাংলাদেশের কয়েকটি গণমাধ্যম এই দাবি করে খবর প্রকাশ করেছে। একই দাবি করেছে তেমন-প্রচার-নেই এমন দুয়েকটি অনলাইন পোর্টালও।

সুধীরের ওপর হামলার খবর মিথ্যা- বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম এমন খবর প্রকাশ করেছে তার নিজস্ব আলোকচিত্রীর বরাত দিয়ে। আর টেলিভিশন স্টেশন ইন্ডিপেন্ডেন্ট কথা বলেছে ঘটনার শিকার সুধীরের সঙ্গেই। (সুধীর দর্শক, বধীর সাংবাদিক)

এদের বাইরে দৈনিক প্রথম আলোর অনলাইন সংস্করণও একটি খবর প্রকাশ করেছে। ‘সুধীরের ওপর আক্রমণের খবরের সত্যতা নিয়ে প্রশ্ন‘ শিরোনামের খবরে বলা হয়: “প্রশ্ন ওঠার কারণ এবিপি নিউজের ইউটিউব চ্যানেলে পোস্ট করা একটি ভিডিও। ‘ভারতের জনপ্রিয় সমর্থক সুধীর গৌতম কথা বলছেন এবিপি নিউজের সঙ্গে’ শিরোনামে এবিপি নিউজের অফিসিয়াল ইউটিউব চ্যানেলের ভিডিওটিতে ছবি পোস্ট করার তারিখ দেখা যাচ্ছে ২১ জুন, ২০১৫। ভিডিওটির বর্ণনাতে লেখা হয়েছে, ‘ভারতের জনপ্রিয় সমর্থক সুধীর গৌতম কথা বলছেন এবিপি নিউজের সঙ্গে। ঢাকায় দ্বিতীয় ওয়ানডে ম্যাচের পর তিনি আক্রমণের শিকার হন।’

সুধীরের ওপর হামলা নিয়ে প্রথম আলোর খবরের স্ক্রিনশট
সুধীরের ওপর হামলা নিয়ে প্রথম আলোর খবরের স্ক্রিনশট

প্রথম আলো বলছে, “কিন্তু ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে সুধীর কথা বলছেন দিনের বেলায়। অনেকেরই প্রশ্ন, ২১ জুন রাতে শেষ হয়েছে ম্যাচ। খবরের ভাষ্য অনুযায়ী এর পর আক্রমণের শিকার হন সুধীর। কিন্তু তিনি এ নিয়ে কথা বলছেন দিনের বেলায়। তাহলে ভিডিওটি আজকের হওয়ার কথা। অর্থাৎ ২২ জুন। কিন্তু ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে, সেটি পোস্ট করা হয়েছে ২১ জুন। এই প্রশ্ন তাই ওঠে, ভিডিওটি আগেই তৈরি করে পোস্ট করা হয়েছে কিনা। স্বাভাবিকভাবেই অনেকেই দাবি করছেন, ইচ্ছে করেই এমন খবর তৈরি করে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করার চেষ্টা করা হচ্ছে।”

প্রথম আলোর মতো অনেক ফেইসবুক ব্যবহারকারীও এই প্রশ্ন তুলেছেন। তাদের এই প্রশ্নের সমাধান দিয়েছেন রিফাত আলম

তিনি বলছেন, অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের একটি টুল ব্যবহার করে সহজেই কোনো ভিডিওর প্রকৃত আপলোড ডেট জানা সম্ভব। এজন্য যেতে হবে http://www.amnestyusa.org/citizenevidence/ সাইটে।

ভিডিওটি সেখানে যাচাই করে রিফাত বলেন, ভিডিও আপলোড হয়েছে- আনুমানিক বাংলাদেশ সময় ২২ জুন দুপুর পৌনে ১২টা নাগাদ।

তিনি বলেন, তার মানে খেলার পরেরদিন সকালে ধারণ করে তারপর এই ভিডিও আপ্লোড করা খুবই সম্ভব।

ভিডিওর তারিখ কেন ২১ জুন দেখাচ্ছে? রিফাতের মতে, তার ব্যখ্যা হচ্ছে সম্ভবত গুগল তার সার্ভারের পাবলিশ টাইম দেখায়। সে হিসেবে ঠিক আছে, কারণ নর্থ আমেরিকার সময় (ক্যালিফোর্নিয়ার সময়) খেলা শেষ হয়েছে ২১ জুন সকাল ১১টা নাগাদ। বাংলাদেশ সময় ২২ জুন দুপুর পৌনে বারোটায় ভিডিও আপলোড হলে- নর্থ আমেরিকাতে তখন ২১ জুন রাত পৌনে এগারোটা। গুগল সম্ভবত সেই ডেটই দেখাচ্ছে।

অথবা ভিডিওটা নর্থ আমেরিকা থেকে আপ্লোড হয়েছে এবং গুগল মূল আপলোডারের লোকাল টাইমে দেখাচ্ছে, সেটাও হতে পারে। মোদ্দাকথা, ভিডিওতে কোন ফাঁকিবাজি সম্ভবত নেই।

Advertisements

মন্তব্য?

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s